1. [email protected] : amardesh :
  2. [email protected] : Smak Pervez : Smak Pervez
  3. [email protected] : sumarubelp :
সারাদেশের ন্যায় যশোরের বাজারেও দ্রব্যমুল্যোর দাম আগুন দাম বেড়েছে শিক্ষা উপকরণেরও - আমার দেশ প্রতিদিন
June 30, 2022, 6:29 am
ব্রেকিং নিউজ:
নির্মল রজ্ঞন গুহের মৃত্যুতে সেন্ট্রাল ফ্লোরিডা মহানগর আওয়ামী লীগের শোক প্রকাশ নরসিংদীতে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে কাভার্ডভ্যান খাদে, নিহত ৪ ফেরার দেশে চলে গেলেন আক্কেলপুরের প্রবীণ সাংবাদিক বিরেন চন্দ্র না ফেরার দেশে নরসিংদীর বেলাব উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা বাবর আলী জয়পুরহাটের কালাইয়ে ওপেন হাউজ ডে অনুষ্ঠিত নকল ডিটারজেন্টে সয়লাব ডুমুরিয়ার বাজার গুলো ভোক্তারা বিপাকে বন্যা কবলিত এলাকায় সরকার ও ধনাঢ্য ব্যক্তিদের এগিয়ে আসার আহবান পদ্মা সেতু উদ্ভোধন” আনন্দ উৎসবের বাজেট আত্বসাতের অভিযোগ বাংলাদেশ দূতাবাস ফ্রান্সের বিরুদ্ধে নরসিংদীর শিবপুরে বঙ্গবন্ধু-বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ প্রেসক্লাব লালমনিরহাটের উদ্দোগে তরুনদের মাঝে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরন

সারাদেশের ন্যায় যশোরের বাজারেও দ্রব্যমুল্যোর দাম আগুন দাম বেড়েছে শিক্ষা উপকরণেরও

Reporter Name
  • Update Time : Tuesday, May 24, 2022,
  • 20 Time View

হাফিজুর শেখ যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ
শিক্ষা উপকরণেও দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রভা
যশোরে দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রভার পড়েছে শিক্ষা উপকরণেও। হঠাৎ করেই বই, খাতা, কলমসহ স্টেশনারি সামগ্রীর দাম বেড়েছে।খোঁজ নিয়ে জানা গেলো, বই ও খাতার মূল উপকরণ কাগজসহ সব ধরনের শিক্ষা উপকরণের দাম প্রায় দেড়গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। আর ফটোকপি করা বইয়ের দাম বেড়েছে গড়ে ২০ থেকে ৩০ শতাংশ। সমাজের উচ্চবিত্তের মাঝে প্রভাব প্রকট না হলেও শিক্ষা উপকরণের মূল্য বৃদ্ধির প্রভাব নিম্ন আয়ের ক্রেতাদের মধ্যে পড়েছে।তবে যশোর শহরের কয়েকটি শিক্ষা উপকরণের দোকান ঘুরে দেখা গেছে, বিভিন্ন ধরনের তৈরি খাতার দাম বেড়েছে প্রায় দেড়গুণ। সেই সঙ্গে বেড়েছে বইয়ের দামও। বিভিন্ন বিদেশি লেখকের মূল বই বাজারে আর পাওয়াই যাচ্ছে না। ফলে ফটোকপি বইয়ের দাম বেড়েছে গড়ে ২০ থেকে ৩০ শতাংশস্টেশনারি ও শিক্ষা উপকরণ বিক্রির দোকানগুলোতে ৪০ টাকার ব্যবহারিক খাতা এখন ৫০ টাকা, ৬০ টাকার খাতা ৭০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। ৩০০ পৃষ্ঠার খাতা ৫০ টাকা থেকে বেড়ে ৬৫ টাকা, ১২০ পৃষ্ঠার খাতা ৩০ টাকা থেকে ৩৫ টাকা, কালার পেপার রিম ৩২০ থেকে বেড়ে ৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। রেজিস্টার খাতা ৩০০ পৃষ্ঠা ১২০ টাকা থেকে ১৪০ টাকা, ৫০০ পৃষ্ঠা ১৮০ টাকা থেকে ২০০ টাকায় কিনতে হচ্ছে।মিনি ফাইল প্রতিটি ১৫ টাকা থেকে বেড়ে ২০ টাকা। জিপার ফাইল ২৫ টাকা থেকে ৩০ টাকা। কলমের দাম ডজনপ্রতি বেড়েছে ১০ থেকে ২০ টাকা। মার্কার পেন প্রতি পিস ২৫ টাকা থেকে বেড়ে ৩০ টাকা হয়েছে। সাধারণ ক্যালকুলেটর ৮০ টাকা থেকে বেড়ে ১২০ টাকা, ৯৯১ এক্স ১ হাজার ৫০০ টাকা থেকে বেড়ে ১ হাজার ৭০০ টাকা, ৯৯১ এক্স প্লাস ১ হাজার ৩৫০ টাকা থেকে ১ হাজার ৬০০ টাকা, ৯৯১ এমএস ৮৫০ টাকা থেকে বেড়ে ১ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে।জ্যামিতি বক্স ৭০ থেকে ৮০ টাকা, ১০০ টাকা থেকে বেড়ে ১২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্লাস্টিক ও স্টিলের স্কেল ডজনপ্রতি ২০ টাকা থেকে ৫০ টাকা বেড়েছে। রাবার ডজনপ্রতি ১০ টাকা থেকে ২০ টাকা বেড়েছে।
ধর্মতলা মোড়ে ফটোকপি দোকানি আব্বাস আলী বলেন, কালি ও কাগজের দাম বেড়ে যাওয়ায় ফটোকপির দাম বেড়েছে। আগে প্রতি কপি ফটোকপি করতে এক টাকা নিতাম। তা এখন দেড় টাকা থেকে দুই টাকা নিতে হচ্ছে
ফটোকপি দোকানে কথা হয় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ইমরান হোসেন ও ফাহিম আহমেদের সঙ্গে। তারা জানান, পড়াশোনার জন্য বিভিন্ন বই ও নোট ফটোকপি করতে হয়। গত ১৫ দিনে ফটোকপি ব্যয়ও বেড়েছে।মুসলিম একাডেমি স্কুল মার্কেটর আশা বুক ডিপোর মালিক মোঃ নাসির বলেন।
কাগজ ছাড়াও পুস্তক প্রকাশনার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব উপকরণের দাম বেড়েছে। প্লেটের দাম দ্বিগুণ হয়েছে। এছাড়া লেমিনেশনের দর দ্বিগুণ, সব ধরনের কেমিক্যালের দাম দ্বিগুণ হয়েছে। এজন্য বইয়ের দাম বেড়েছে। যে প্রকাশনীর বই বাজারে একবার শেষ হচ্ছে, সেই বইয়ে দাম বেড়ে যাচ্ছে।বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির আরেক সহ-সভাপতি ও যশোর বুক সাপ্লাই লাইব্রেরির স্বত্বাধিকারী সরফরাজ হোসেন বলেন, দেড় মাস আগে প্রতি টন নিউজপ্রিন্ট কাগজের দাম ছিল ৪০ থেকে ৪২ হাজার টাকা। এখন তা ৭০ হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে। সে সময়ে সাদা কাগজের মূল্য ছিল প্রতি টন ৭০ থেকে ৭১ হাজার টাকা। এখন তা ৯৬ হাজার টাকার ওপরে কিনতে হচ্ছে। এই দামের প্রভাব বই এবং খাতার ওপরে পড়েছে কথা হয় এক ছাত্র বাবলুুুর সাথে সে জানাই আমি আগে কলম কিনেছি ৫ টাকা করে এখন কিনতে হচ্ছে ৭ টাকা করে। একই ভাবে সকল জিনিসের দাম বেড়েছে। আমার বাবা একজন কৃষক এরকম দাম বাড়লে আমরা কি ভাবে পড়া লেখা করবো।তাই সরকারের কাছে অনুরোধ আবারো সকল জিনিসের দাম কুমিয়ে দিক।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Copyright © All Right Reserved 2020 আমার দেশ প্রতিদিন
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )