1. [email protected] : amardesh :
  2. [email protected] : Smak Pervez : Smak Pervez
  3. [email protected] : sumarubelp :
যশোরের চৌগাছায় কৃষকের সোনার সপ্ন পানির নিচে, তলিয়ে গেছে মাঠে কেটে রাখা ধান - আমার দেশ প্রতিদিন
May 28, 2022, 7:47 pm
ব্রেকিং নিউজ:
নরসিংদীতে অযথাই গালাগালি প্রতিবাদ করায় দুই ভাই বোনকে কুপিয়ে জখম কালিহাতীতে তুচ্ছ ঘটণায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে নিহত- ১ আহত- ৫ শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ সন্ত্রাস দমনে সাফল্য অর্জন করেছে’ আবারও ‘প্রেমে’ পড়েছেন পরীমনি টঙ্গীতে যুবদলের মিছিল ইমরানের লংমার্চ ঠেকাতে খরচ ১৫ কোটি রুপি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) এর ‘হাকিকি আজাদি মার্চ’ ঠেকাতে পাকিস্তান সরকারের খরচ হয়েছে ১৫ কোটি রুপি। ছাত্রদল সম্পাদকসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগের মামলা ৪১ বছর আগের প্রতিশোধ নিতে চায় রিয়াল মাদ্রিদ উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের মঞ্চ প্রস্তুত। দেশের অর্থনীতিকে ফরমালিন দিয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে: রেজা কিবরিয়া জাহাজ নিয়ে এলো রাশিয়া

যশোরের চৌগাছায় কৃষকের সোনার সপ্ন পানির নিচে, তলিয়ে গেছে মাঠে কেটে রাখা ধান

Reporter Name
  • Update Time : Tuesday, May 10, 2022,
  • 12 Time View

হাফিজুর শেখ চৌগাছা যশোর জেলা প্রতিনিধিঃযশোরের চৌগাছায় হঠাৎ বৃষ্টিতে বোরো ধান নিয়ে কৃষকের স্বপ্ন মাঠেই মারা যাওয়ারও উপক্রম হয়েছে। মাঠে কেটে রাখা ধানের ওপর পানি, কোথাও পানিতে ভাসছে মাঠে বেঁধে রাখা ধান।বেলা ১১টার দিকে চৌগাছা উপজেলায় বৃষ্টি শুরু হয়। গোটা উপজেলা জুড়ে ঝুম বৃষ্টিতে মাঠে কেটে রাখা, কোথাও বেঁধে রাখা, কোথাও জালি দিয়ে রাখা (কেটে, বেঁধে মাঠের এক জায়গায় গাদা করে রাখা) ধানের ওপর দিয়ে পানির স্রোত বয়ে যাচ্ছে। এ নিয়ে কৃষকের সর্বশান্ত হওয়ার উপক্রম।উপজেলার সিংহঝুলি গ্রামের আলম দফাদার বলেন, চৌদ্দ বিঘা ধান করেছি। শ্রমিক না পাওয়ায় কাটতে পারিনি। ঠাকুরগাঁও থেকে শ্রমিক এসেছে সোমবার (৯ মে) সকালে। ধান কাটতে কাটতেই বৃষ্টিতে ভিজে সারা।
তিনি বলেন, এরআগে মাঠে কারেন্ট পোকায় কেটে চাষীর ক্ষতি করেছে। শ্রমিক সংকটের কারণে ধান কাটতে না পেরে এখন বৃষ্টিতে ভিজে শেষ হয়ে গেলো।রামকৃষ্ণপুর গ্রামের বাসিন্দা চৌগাছা শহরের একটি স্কুলের শিক্ষক ও স্থানীয় সাংবাদিক বাবুল আক্তার বলেন, রবিবার রাতে আমি ও আমার এক ভাই দুই জনের দুই বিঘা খেতের ধান বেঁধে জালি দিয়েছি। এখন সেই জালির ওপর দিয়ে পানির স্রোত যাচ্ছে। তিনি বলেন, খেতটি একটু নিচুতে হওয়ায় সেখানকার মাটি নরম ছিলো। সেজন্য কোনো গাড়ি না যাওয়ায় ধান বাড়ি নিতে পারিনি। তাছাড়া আবহাওয়া বার্তা ছিলো দশ তারিখের পর বৃষ্টি হবে। হঠাৎ সোমবার দিনভর যে বৃষ্টি হয়েছে তাতে উপজেলার কমবেশি সকল কৃষকেরই ক্ষতি হয়েছে।
এদিকে আবহাওয়া বার্তা রয়েছে মঙ্গলবার দুপুরের পর থেকেই ঘূর্ণিঝড় আসানির প্রভাবে বৃষ্টি হবে। বৃষ্টি এভাবে টানা দু’তিনদিন চললে কৃষকের সব স্বপ্ন মাঠেই মারা যাবে।সিংহঝুলি গ্রামের কৃষক টনিরাজ বলেন, ধান কেটে রেখেছিলাম। কারেন্ট পোকার আক্রমণ, শ্রমিক সংকটের পর এই অসময়ের বৃষ্টিতে কেটে রাখা ধানগুলি সব শেষ।কৃষকরা জানিয়েছেন, ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের টানা বর্ষণে বীজতলা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় চৌগাছার বোরো ধান চাষ প্রায় একমাস পিছিয়ে যায়। ব্যপক ক্ষতি হয়, পেয়াজ, আলুসহ বিভিন্ন সবজির। সেই ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কৃষকরা উপজেলায় লক্ষমাত্রার চেয়ে প্রায় ১ হাজার ১৫০ হেক্টর বেশি জমিতে বোরো ধান চাষ করেন। ধানের ফলনও হয়েছিলো বাম্পার। তবে অসময়ের হঠাৎ এই বৃষ্টিতে কৃষকের সেই স্বপ্ন এখন মাঠেই জলে ডুবে রয়েছে।উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় চলতি মৌসুমে বোরো চাষের লক্ষমাত্রা ছিলো ১৭ হাজার ৫০০ হেক্টর। তবে কৃষকরা ১৮ হাজার ৬৫০ হেক্টর জমিতে ধানের চাষ করেছিলেন। উপজেলা কৃষি অফিসের তথ্যমতে, ধানের বাম্পার ফলনও হয়েছিলো। সারাদেশে গড়ে হেক্টরে যেখানে ৫.৮২ মেট্রিকটন ধান উৎপদন হলেই বাম্পার ফলন ধরা হয়। চৌগাছায় সেখানে হেক্টর প্রতি ৬ মেট্রিকটন ধান উৎপাদন হওয়ার আশা করছিলেন কৃষি কর্মকর্তারা। এখন বৃষ্টিতে সেই লক্ষঅর্জনও সম্ভব হবে না বলে জানাচ্ছেন কৃষকরা।এবিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সমরেন বিশ্ব্স বলেন, অসময়ের বৃষ্টিতে কিছুটা ক্ষতি তো হবেই। তিনি বলেন, তবে বৃষ্টি আর না হলে কৃষকের ক্ষতির পরিমাণ কমবে

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Copyright © All Right Reserved 2020 আমার দেশ প্রতিদিন
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )