1. admin@amardeshpbd.com : amardesh :
  2. sumarubelp@gmail.com : suma :
এরই নাম শেখ হাসিনা  সমকালীন বিশ্বের লৌহমানবী - আমার দেশ প্রতিদিন
December 3, 2022, 3:00 pm
ব্রেকিং নিউজ:
পাইকগাছা উপজেলা সাংস্কৃতিক জোটের সমন্বয়ক কমিটি ঘোষনা চুনারুঘাটের গ্রাম্য মোড়ল দ্বারা সমাজচ্যুত হামিদা বেগম ৫ জন কে আসামী করে থানায় অভিযোগ দায়ের রাজশাহীতে বিএনপির গণসমাবেশ; পথে পথে পুলিশের বাধা রাজস্থলী ও বাঙ্গালহালিয়াতে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২৫ বর্ষপূর্তি উদযাপন জাতীয়তাবাদী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম দলের ২৪ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে জিয়া রহমানের মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা কারামুক্ত হলেন আলোচিত আব্বাস আলী বিএমএসএস সিলেট বিভাগীয় সম্মেলন ৩রা ডিসেম্বর সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন দেশবাংলার রাজশাহী বিভাগীয় প্রধানকে হুমকি, ১০১ সাংবাদিকের বিবৃতি একাধিক এ প্লাস পাওয়ায় কাশিনাথপুর কামরুজ্জামান ল্যাবরেটরি স্কুল এন্ড কলেজের আনন্দ শোভাযাত্রা নেইমার বিশ্বকাপ খেলবে তিতে

এরই নাম শেখ হাসিনা  সমকালীন বিশ্বের লৌহমানবী

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, অক্টোবর ২৭, ২০২০,
  • 146 Time View

 

 

এসএমএ কামাল পারভেজ

সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি

✍✍✍✍

 

সম্প্রতি নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের নারী নির্যাতনের ভয়াবহ দৃশ্য গোটা দেশবাসীকে বাকরুদ্ধ করেছে। সর্বস্তরের সাধারণ মানুষ নির্যাতনকারীদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে নানা কর্মসূচি পালন করেছেন। এমন পাশবিক,নারকীয় ঘটনার প্রতিবাদে মানুষের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ নিঃসন্দেহে আশাজাগানিয়া।

নারী নির্যাতন এবং ধর্ষণের ঘটনা জ্যামিতিক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় গোটা জাতি উদ্বিগ্ন, উৎকন্ঠায় আতঙ্কিত প্রতিটি মা-বাবা।

কিন্তু ধর্ষণ এবং নারী নির্যাতনের মত ঘৃণ্য, পাশবিক কাজগুলোর জন্য আমাদের বিকৃত মানষিকতাই প্রধানত দায়ী, দায়ী আমাদের সামাজিক অবক্ষয় এবং নৈতিকতার স্খলন।

কিন্তু এসবের জন্য ঢালাওভাবে সরকার বাহাদুর কে দায়ী করে তার পদত্যাগ চাওয়া কতটা সমীচীন?

 

দুঃখজনক হলেও সত্য,ইতিহাসের পাতায় গোটা জাতি ধান ভানতে শিবের গীত শোনার সাক্ষী হয়ে রইলো।

 

স্বল্পতম সময়ের মধ্যে সকল অভিযুক্ত আইনের আওতায় আসার পরেও

নোয়াখালীর ঘটনা কে পুঁজি করে একটি মহল অশ্লীল, অশ্রাব্য প্লা কার্ড মেয়েদের গলায় ঝুলিয়ে দিয়ে কোথাকার নাতাশা নাকি বাতাসার কন্ঠে সোয়ার হয়ে শেখ হাসিনার গদি জ্বালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করলো!

 

 

আহঃ আন্দোলনের কি মাহাত্ম্য(!)

প্লা কার্ড ধারী বাঙালি ললনারা ধর্ষিতা হতে রাজি বিনিময়ে হাসিনা ক্ষমতা ছাড়লেই যেন তারা অন্তরালের কুশীলবদের জিঘাংসার গর্ভপাত ঘটিয়ে পূতপবিত্র হয়ে উঠবে!

 

 

শেখ হাসিনার পদত্যাগ তথা তালগাছ টার বিনিময়ে ধর্ষণের প্রতিবাদ করতে এসে যারা “Fuck me তবুও হাসিনার পদত্যাগ চাই ” এমন অশ্লীল প্লা কার্ড ধারণ করতে পারে তখন তাদের অন্তরালের ক্রিড়ানক এবং পলিসি মেকারদের লক্ষ্য উদ্দেশ্য কি সেটা বুঝতে বিশেষজ্ঞ হওয়ার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না।

 

 

সরকার বা সরকারি কোন মহল উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে নারী নির্যাতন এবং ধর্ষণের মত জঘন্য কাজে অভিযুক্ত কাউকে দায় হতে অব্যাহতি দেওয়ার অপচেষ্টায় লিপ্ত হলে তখন সরকার পতন আন্দোলন নিশ্চয়ই শতভাগ জায়েজ হয়ে উঠতে পারে, এতে কোন সন্দেহ নেই।

কিন্তু আপনি জন্মগত আওয়ামী বিদ্বেষী হলেও বুকে হাত দিয়ে বলতে পারবেন কি এমন কাজে শেখ হাসিনা কখনো প্রশ্রয় দিয়েছেন ?

 

 

তার দলের মধ্যেও অনেক আদর্শ বিচ্যুত কুলাঙ্গার রাজনীতিক রয়েছেন যারা আওয়ামী লীগ কে কর্পোরেট হাউজ বানিয়ে বঙ্গবন্ধু এবং শেখ হাসিনা কে বেচা-কেনার পন্য হিসেবে রমরমা ব্যবসা করছেন এমন কি তাদের দু’একজন ফেরাউন,

নমরুদের চেয়েও ভয়ংকর, এটা আমিও বিশ্বাস করি।

 

 

কিন্তু “কারো ব্যক্তিগত অপকর্মের দায় দল এবং সরকার নেবে না” মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই দ্ব্যর্থহীন উচ্চারণের সাথে সরকার প্রধান হিসেবে কখনো কি তিনি দ্বিমুখী আচরণ করেছেন?

 

 

বিশ্বজিৎ হত্যাকান্ডের দলীয় লেবাসধারী কুলাঙ্গাররা যেমন পাড় পায়নি তেমনি খালেদা ভুইয়া,জিকে শামীম,রিজেন্ট শাহেদ, পাপিয়ারাও বাঁচতে পারেননি। ঠিক তারই ধারাবাহিকতায় গতকালের ঘটনা নিয়ে বাংলার মাথা ইজারা দেওয়া সুশীল বাবুরাও নিশ্চুপ!

 

 

হ্যাঁ আমি ইরফান সেলিমের কথা বলছি।

কারণ ইরাফান সেলিম যেনতেন কেউ না। তার বাবা শুধু এম,পি নন লালবাগের হাজী সেলিম, শ্বশুর মহাশয় নোয়াখালীর এম,পি, শ্বাশুড়ি আম্মাও উপজেলা চেয়ারম্যান!

এখানেই কি শেষ!

নিজেও ঢাকা দক্ষিণের ৩০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

তাতে কি শেষ রক্ষা হয়েছে?

এরই নাম শেখ হাসিনা।

সমকালীন বিশ্বের লৌহমানবী।

‘৭১ এর পরাজয়ের গাত্রদাহে হেনরি কিসিঞ্জার সদ্য স্বাধীন বাংলাদেশ কে তলা বিহীন ঝুড়ি বলে আখ্যা দেওয়া প্রিয় বাংলাদেশ কে

জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা প্রিয় নেত্রী শেখ হাসিনার দৃঢ়চেতা, দূরদর্শী, ক্যারিশমাটিক নেতৃত্বে গোটা জাতি কে উন্নয়নের মহাসড়কে সংযুক্ত করে আন্তর্জাতিক সকল সূচকে বাংলাদেশ কে উন্নয়নের রোল মডেলের হিসেবে বৈশ্বিক স্বীকৃতি আদায় করেছেন।

 

 

আর দুষ্টের দমন?

ইরাফান সেলিম এর পিছমোড়া হ্যান্ডকাফ পরিহিত ছবির বিজ্ঞাপন দেখার পরও কি ছাগুদের পাকি প্যাঁ প্যাঁ বন্ধ হবে না?

 

 

ক্ষমতা চিরস্থায়ী নয় এটা রাজনীতির অমোঘ বাণী।

তারপরও শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কুটকৌশলের কাছে বার বার ঝামা ঘষা হয়ে মাঠের রাজনীতির বিরোধী শিবির যেভাবে চুড়ি পরা হিজড়ায় পরিণত হয়েছে তাতে করে সরকারের পিন্ডি উদ্ধারের নামে শেখ হাসিনা সরকারের তথ্য-প্রযুক্তির আশীর্বাদে সাংবাদিক সম্মেলন মার্কা মুখরোচক রাজনীতি আর নেত্রীর দূর্নীতির মামলায় সাজার খবরে যাত্রাপালার মত কেঁদেকেটে বুক ভাসানোর লাইভ টেলিকাস্ট যতই করুণ আফসোস নেই।

কিন্তু যত্রতত্র কারণে শেখ হাসিনার পদত্যাগ চেয়ে দয়াকরে হাসির খোরাক না হওয়াই বুদ্ধিমানের।

কারণ শেখ হাসিনার সরকার ঝড়ের মুখে উড়ে চলা কোন পাতা নয় স্বচ্ছলতায় শিকড়গাড়া এক বটবৃক্ষ। হালের মোশতাক গং ছাড়া আপনাদের সেটা উপড়িয়ে ফেলার সামর্থ্য আছে বলে আপাতত আপনাদের পলিসি মেকার কিংবা সুশীল বাবুরাও বিশ্বাস করেন বলে মনে হয় না।

 

 

আপনি যত প্রভাবশালী কিংবা সরকার বা ক্ষমতাসীনদের ঘনিষ্ঠ হন না কেন অন্যায় করলে বিচারের হাত থেকে রেহাই পাবেন না এবং কারো ব্যক্তিগত অপকর্মের দায় সরকার কিংবা দল নেবে না – মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর এই ঘোষণা অন্তত দুর্নীতিগ্রস্থ, বিত্তশালী আওয়ামী নেতা-কর্মীদের বিশেষ ভাবে মনে রাখা দরকার!

পিছমোড়া হ্যান্ডকাফ পরিহিত ইরফান সেলিম কে দেখে শিক্ষা নিলে আরো ভালো।

 

 

কেননা যেকোনো মুহূর্তে আপনার দড়জায়ও কড়া নাড়তে পারে বিশেষ পরোয়ানা। সঙ্গে থাকতে পারেন সরোয়ার আলম স্যার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category
Copyright © All Right Reserved 2020 আমার দেশ প্রতিদিন
Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )